গৌরনদীতে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার অভিযান সীলগালা ৪টি ডায়াগনষ্টিক সেন্টার

এম আলম, গৌরনদী।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি’র নির্দেশে শনিবার বরিশালের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার নেতৃত্বে অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে অভিযান চালানো হয়। দিনভর অভিযানে ৪টি ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে সীলগালা করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। একই সময় লাইসেন্স নবায়ন না করা ও প্রয়োজনীয় শর্তসমূহ পূরন না করার দায়ে আরো ১২টি ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে ৭দিনের সময় বেঁধে দিয়ে কাগজপত্র ঠিক করাসহ প্রয়োজনীয় শর্ত পূরন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সুত্রমতে গৌরনদী উপজেলায় বৈধ অবৈধ ৬৪টি ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টার রয়েছে।
গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের সহায়তায় শনিবার বেলা ১১টা থেকে বিকেল পৌনে ৪টা পর্যন্ত ১৬টি ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এর মধ্যে লাইসেন্স না থাকায় আশোকাঠী এলাকায় অবস্থিত ইয়াসিন প্যাথলজি, সান এক্সরে এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, আশা ডায়গনষ্টিক সেন্টার, বনানী ডায়গনষ্টিক সেন্টারকে সীলগালা করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
অভিযানকালে লাইসেন্স আছে কিন্তু নবায়ন নেই। সার্বক্ষনিক ডিউটি ডাক্তার নেই, এ্যানেস্থেশিয়া চিকিৎসক নেই। প্যাথলজিষ্ট নেই এমনি নানা অনিয়মের অভিযোগে ১২টি ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের মালিকদেরকে সতর্ক করে ৭দিনের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।
অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আলহাজ¦ ডাঃ মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টার গুলোতে অভিযান চলমান থাকবে।