মিঠা পানির সঙ্কটে জীবকুল—!


বিভিন্ন ধর্মে পানি নিয়ে গুরত্বপূর্ন কথা বলা হয়েছে।
** আমরা যেন পানির সংরক্ষন করি সম-বন্টন করি মানুষসহ অন্যান্য জীব ও গাছ পালার মধ্যে-(আলÑকোরান)।
** পানিই জীবন পানিই খাদ্য-(যর্জুবেদ)।
** মহা-সাগর সকল জীবের শয্যা-(অথর্ববেদ)।
** পানিতেই ঈশ্বরের বসতি বৃক্ষের সত্তা হলো পানি-(বাইবেল)।
** পানির মধ্যে আত্মার বিকাশ এ কথা যে অস্বীকার করে সে নিজের অস্তিত্বকেই অস্বীকার করে-(জৈনদর্শন)।
প্রকৃতির অলঙ্করন মানুষ আবার মানুষের অলঙ্করন প্রকৃতি। আর এ প্রকৃতি নিয়ে আমাদের কোন ভাবনা নেই যাও আছে ফ্রেম বন্ধী। প্রকৃতির অগনিত উপাদানের মুলধারার উপাদান পানি আর মাটি। পানি মাটি ছাড়া প্রকৃতি এবং মানুষের অস্তিত্ব শতভাগ মিথ্যা।
পানি নিয়ে হাজার হাজার বছর আগেও ধর্মীয়ভাবে নবী,রাসুল,পন্ডিত,মনি ঋষীরাও সতর্ক বার্তা দিয়ে গেছেন। যে যুগে মিঠা পানির কোন অভাব ছিল না। হাজার হাজার বছর পুর্ব থেকে আমাদের সচেতন করা হচ্ছে। অথচ বারবার আমরা একই ভ‚ল করে হাতে গোনা কিছু মুনাফালোভী অবৈধ পেশী শক্তির সহায়ক মানুষের অতিলোভের কারনে পৃথিবীর জীবকুলের অস্তিত্ব বিলিন করার পর্যায়ে পৌঁছে দেয়।
কিন্ত আমরা সচেতনতা অর্জন করতে পারি নাই। আজকে আমরা সঙ্কিত মিঠা পানির সমস্যা সমাধানের কোন উপায় আছে কি ? নাই কেন না পানিরই আরেক নাম জীবন। সময় এখনও আছে কথা না বাড়িয়ে আমাদের সকল ভেদাভেদ ভ‚লে গিয়ে মিঠা পানি আর মাটি রক্ষার জন্য প্রকৃতির পরম বন্ধু হয়ে যাই। আসুন আমরা পৃথিবীটাকে সবুজে ভরে দেই। নিউক্লিয়ার এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ প্রতিবাদ করি। পলিথিন না বলি। ফিরে যাই জৈব চাষাবাঁধে। ফিরে চলো মাটির টানে।প্রথম পর্ব (আহছান উল্লাহ)