জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন অন্ধকার হতে আলোর পথে যাত্রা

আহছান উল্লাহ ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ। পাকিস্তানের বন্দিদশা থেকে মুক্তি পেয়ে ১৯৭২ সালের এই দিন তিনি সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখেন। মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের পর তার মুক্তি ও দেশে প্রত্যাবর্তন নিয়ে সারা দেশেই উৎকণ্ঠা বিরাজ করছিল। মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের আনন্দ অপূর্ণ রয়ে গিয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন বাংলাদেশে ফেরার মধ্য দিয়ে মানুষ যেন পূর্ণাঙ্গ বিজয়ের দেখা পেয়েছিল সেদিন। বঙ্গবন্ধু তার এই স্বদেশ প্রত্যাবর্তনকে আখ্যায়িত করেছিলেন ‘অন্ধকার হতে আলোর পথে যাত্রা’ হিসেবে।
বঙ্গবন্ধুকে বহনকারী বিমানটি যখন তেজগাঁও বিমানবন্দরের রানওয়ে স্পর্শ করে, তখন ঢাকার রাস্তায় আনন্দাশ্রুতে উদ্বেলিত হতে থাকে লাখ লাখ জনতা। এর আগে ৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের মিয়ানওয়ালি কারাগারে দীর্ঘ ৯ মাস কারাভোগের পর মুক্তি লাভ করেন তিনি। সেদিনই তিনি পাকিস্তান থেকে লন্ডনে যান। সেখানে দুই দিন অবস্থান করে ১০ জানুয়ারি দিল্লি হয়ে ঢাকায় ফেরেন বঙ্গবন্ধু।

ঐতিহাসিক দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে বরিশালের গৌরনদী উপজেলা-পৌর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক সংঘঠন।
এ উপলক্ষে ১০জানুয়ারী বিকাল ৪টায় গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডস্থ আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দলীয় নেতৃবৃন্দরা আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় থেকে একটি বর্নাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালি শেষে গৌরনদী পৌরসভার বারবার নির্বাচিত মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ হারিছুর রহমান’র সভাপতিত্বে গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডস্থ আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মোনাযাত অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় ঐতিহাসিক এই দিবসটি  গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান। বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আবু সাইয়েদ নান্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হালিম সরদার। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মনসুর নিপাহি,মাহবুব চোকদার। পৌর কাউন্সিলর আল আমীন হাওলাদার, ইখতিয়ার হাওলাদার, গৌরনদী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বিশ্বজিত সরকার বিপ্লব,সাংবাদিক কামাল হোসেন লিটন,আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক কাউন্সিলর মো.বাচ্চু,খোকন মল্লিক, মামুন মোল্লা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আনিচুর রহমান, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মাহাবুব আলম, উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ফারুক বেপারী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের ইসলাম সান্টু ভূইয়া, সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান দীপ।