গৌরনদীতে নিজ শিশুপুত্রকে হত্যাকারী মা গ্রেফতার


মো.লিটন সরদার,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি।
নিজ শিশুপুত্রকে হত্যার পর পালিয়ে বেড়ানো বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বড় দুলালী গ্রামের সেই মা পলি বেগম (৩৫)কে পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেফতার করেছে। এ গ্রেফতারের ঘটনা নিয়ে পুলিশ ও পলি বেগমের স্বজনদের কাছ থেকে পরস্পর বিরোধী তথ্য পাওয়া গেছে। শিশুপুত্রের ঘাতক হিসেবে গ্রেফতার হওয়া পলি বেগমকে পুলিশ শুক্রবার সকালে বরিশাল আদালতে সোপর্দ করেছে।
নিহত শিশুটি সেঝ চাচা মোঃ হজরত আলী জানিয়েছেন, ঘটনার পর থেকে প্রতি দিনই তিনি তার স্বজনদের সাথে নিয়ে আসপাশের এলাকায় পলি বেগমকে খুজে বেড়াচ্ছিলেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি তার ভাগ্নিজামাই জাহিদ বেপারী ও পলি বেগমের ছোট ভাই সাইদুল সরদার এবং সাইদুল সরদারের শ্যালক বাদল মুন্সী মিলে মাদারীপুর সদরে পলি বেগমকে খুজতে যান। সন্ধ্যার পূর্বক্ষনে তারা মাদারীপুর লেকের পাড়ে পলি বেগমকে ঘুরতে দেখে সেখান থেকে তারা তাকে উদ্ধার করে নিয়ে এসে ওইদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে গৌরনদী মডেল থানায় সোপর্দ করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৮ ডিসেম্বর শনিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে পলি বেগম তার তিন মাস ১২ দিন বয়সের শিশুপুত্র জুবায়ের তালুকদারকে তাদের বসত ঘর সংলগ্ন গোয়াল ঘরের পেছনে নিয়ে গলা টিপে একটি বালতির পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে। এরপর শিশুটির লাশ বালতির পানিতে ঢেকে রেখে সে আতœপোপন করে। স্বজনরা জানিয়েছেন শিশুটি গর্ভে আসার পর থেকেই পলি বেগম এর মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। শিশুটি গর্ভে থাকতেই সে গর্ভপাতের জন্য স্বামীর অনুমতি চায়। এ সময় সে তার স্বামী সাগীর তালুকদারকে এ কাজে রাজি করাতে ব্যার্থ হয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গৌরনদী মডেল থানার এস.আই মোঃ কামাল হোসেন বলেন, উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের মাগুরা গ্রাম এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিজ শিশুপুত্রকে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ছালেহা বেগম পলি ওরফে পলি বেগমকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তবে ওই গ্রামের কোন স্পট থেকে, থানা পুলিশের কোন কর্মকর্তা তাকে গ্রেফতার করেছে তা তিনি জানাতে রাজি হননি।
গৌরনদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আফজাল হোসেন জানান, গ্রেফতারকৃত পলি বেগমকে শুক্রবার সকালে বরিশাল আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে পুলিশের কাছে নিজ শিশুপুত্রকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।