৮০ বছরের বৃদ্ধা দিনমজুরের পাশে ওসি আফজাল হোসেন


আবদুল্লাহ আল নোমান।
৮০ বছরের বৃদ্ধা মরিয়ম বেগম কঠোর লকডাউনের ৫ম দিনে পেটের জ্বালায় বের হয়েছেন। আর এই বয়সে ইটভাংগার কাজ করে জিবীকা নির্বাহ করতে হয়। আজ সোমবার বাড়ি থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার দুরে ঢাকা বরিশাল মহাসড়কের বার্থী নামক স্থানে ইট ভাংগার কাজে আসেন বৃদ্ধা মরিয়ম বেগম । তার অসহায়ত্বের কথা শোনে গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক করোনার সম্মুক যোদ্ধা ও মানবিক পুলিশ খ্যাত মো.আফজাল হোসেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। তাকে কিছু খাবার ও নগদ টাকা দিয়ে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করেন।
জানাগেছে বৃদ্ধা মরিয়ম বেগম উপজেলার বাউরগাতী গ্রামের মৃত হালান বেপারীর বিধাবা স্ত্রী তাকে ভরন পোষন করাবার কেউ নেই একটি মেয়ে বিবাহ হয়ে গেছে। এই বয়সে তাকে ইটভাংগার কাজ করে জীবীকা নির্বাহ করতে হয়।
গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক মো. আফজাল হোসেন জানান,লকডাউনের নিয়মিত তদারকীতে বেরহলে বৃদ্ধা মরিয়মের সাথে দেখা হয়। বৃদ্ধার অসহায়ত্বেও কথা শোনে তার বেতনের টাকা থেকে ওই বৃদ্ধাকে সাহায্য করেছেন। তিনি আরো জানান বৃদ্ধার হয়ত কয়েকদিন চলবে তবে তার পাশে এলাকার বৃত্তবানদের এগিয়ে আসার অনরোধ করেছেন।