গৌরনদীর অসহায় বীর মুক্তিযোদ্ধা (বীর প্রতিক) আঃ মালেকের চিকিৎসার ব্যবস্থ্যা করেছেন মাণণীয় মন্ত্রী আবুল হাসানত আব্দুল্লাহ্

Share This
Tags

আবদুল্লাহ্ আল নোমান// টাকার অভাবে মুক্তিযুদ্ধের খেতাব প্রাপ্ত বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের বাসিন্দা (বীর প্রতিক) আব্দুল মালেকের চিকিৎসা বন্ধ হয়ে যায়। গত ১৯ জানুয়ারী বরিশালের বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকার মাধ্যমে পার্বত্য শন্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক (মন্ত্রী), স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এম.পি এ বিষয়টি জানতে পেরে গৌরনদী উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র হারিছুর রহমানের মাধ্যমে খোজ খবর নিয়ে নিজস্ব তহবিল থেকে নগদ ১ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেকের চিকিৎসার ব্যবস্থ্যা করেন।
জানা গেছে, ৬ বছর আগে পক্ষাঘাতে আক্রান্ত হয়ে তিনি পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন। তার বাম হাত ও পা অবশ হয়ে গেছে। ডায়াবেটিকস, হৃদরোগসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে বাকশক্তি ও শ্রবণশক্তি হারিয়ে তিনি এখন শয্যাশায়ী। মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ গ্রহণকারী রণাঙ্গন কাঁপানো গ্রুপ কমান্ডার,খেতাব প্রাপ্ত সেই বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক (৭৭) নানা রোগের কাছে আজ একজন পরাজিত সৈনিক। তার চিকিৎসা করাতে গিয়ে পরিবারটি আর্থিকভাবে আজ প্রায় নিঃস্ব।
মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেকের স্ত্রী রাবেয়া বেগম বলেন, ২০১৩ সালে আমার স্বামী পক্ষাঘাতে আক্রান্ত হয়ে পঙ্গুত্ব বরণ করেন। জমা-জমি বিক্রি করে স্বামীর চিকিৎসার খরচ চালিয়েছি। এরপর ২ বছর আগে আমার (রাবেয়া বেগমের) উভয় কিডনিতে পাথর ধরা পরে। অপারেশন করে পাথর অপসারণ করতে বহু টাকা খরচ হয়েছে। ৩ ছেলে ২ মেয়ে এখনো লেখাপড়া করছে। স্বামীর পেনশন ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতার টাকায় সংসারের খরচ চালাতে হয়। এমতবস্থ্যায় মণণীয় মন্ত্রী আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি সাহায্য দিয়ে আমরা স্বামীর উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করায় আমরা অনেক খুশি ও কৃতজ্ঞ। তার জন্য আমাদের দোয়া রইল।

About the Author

-

%d bloggers like this: