Published On: Sun, Sep 3rd, 2017

মাকাল ফলের ঔষধি গুণ

Share This
Tags

 

মুহম্মদ আহছান উল্লাহ

জেনে রাখুন মাকাল ফলের ঔষধি গুণ বইয়ে পড়ে ‘মাকাল ফল’ প্রবাদটি কমবেশি আমরা সবাই জানি। কিন্তু ফলটিকে চেনেন তো? অকর্মণ্য মানুষকে ‘মাকাল ফল’ বলে গালি দিলেও মাকাল ফল কিন্তু অতটা খারাপ নয়! খাওয়া না গেলেও এ ফল একটি উপকারী ভেষজ এবং পরিবেশবান্ধব বিষ। এক সময় মাকাল ফল গ্রামে-গঞ্জে দেখা গেলেও এটি এখন বিলুপ্তপ্রায়। মাকাল ফলের ইংরেজি নাম Colocynth, bitter cucumber। এর বৈজ্ঞানিক নাম Citrullus colocynthis। ফলটিকে আরবিতে হানজাল, সংস্কৃতে দেব দালিকা এবং হিন্দিতে ইন্দ্রায়ন বলা হয়। উদ্যানতত্ত্ববিদ উইলিয়াম মিথিউস মাকালকে অন্তঃসারশূন্য ফলে বলে অবিহিত করেছেন। মাকাল ফলের গাছ একটি বহুবর্ষজীবী উদ্ভিদ। এটি জঙ্গল বা বাড়ির বড় বড় গাছকে আশ্রায় করে ধীরে ধীরে বেড়ে ওঠে। মাকাল গাছ লম্বায় ৩০ থেক ৪০ ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। এর পাতায় থাকে অনেকগুলো খাঁজ। মাকাল ফল কাঁচা অবস্থায় গাঢ় সবুজ, কিছুদিন পর হলুদ ও পাকলে লাল বর্ণ ধারণ করে। সাধারণত বর্ষাকালে মাকাল ফলের ফুল ও ফল হয়। মাকাল ফলের আদি নিবাস তুর্কি। তুর্কি থেকে এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশে গাছটি বিস্তার লাভ করে। সারা পৃথিবীতে এর ৪২টি প্রজাতি দেখতে পাওয়া যায়। এর মধ্যে বাংলাদেশে দেখতে পাওয়া যায় প্রায় ১২টি প্রজাতি। মাকাল ফল ও গাছের বেশ কিছু ভেষজ গুণও আছে। ব্রিটিশ ফার্মাকোপিয়াতে এই গাছের ব্যবহারের উল্লেখ আছে। আধুনিক ওষুধশিল্পে এ ফলের নির্যাস থেকে তৈরি ওষুধ ল্যাক্সেটিভ হিসেবে ব্যাপক ব্যবহৃত হয়। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে কাঁচা ফলের শুকনো শ্বাস শক্তিশালী কোষ্ঠ পরিষ্কারক। মাকাল ফলের নির্যাস দিয়ে কোষ্ঠকাঠিন্যের ওষুধ তৈরি করা হয়। এর শেকড় দিয়ে বদহজমের ওষুধ তৈরি করা হয়। লিভারের বিষাক্ত পদার্থ দূর করে জার্মানির এক গবেষণা থেকে জানা যায়, মাকাল ফলের নির্যাস লিপিড পার-অক্সিডেশনে বাধা প্রদান করে, লিভার থেকে টক্সিন বা বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। জন্ডিস রোগ নিরাময়ে এই ফলের নির্যাস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। পানি নিষ্কাশন করে দেহে কোনো কারণে পানি জমলে অর্থাত্‍ শোথ রোগে দেহ থেকে পানি দূর করতে মাকাল ফলের নির্যাস খুবই শক্তিশালী ওষুধ হিসেবে কাজ করে। জরায়ুর সমস্যায় মাকাল ফল থেকে তৈরি ওষুধ নারীদের জরায়ুর বিভিন্ন সমস্যায় ব্যবহার করা হয়। বিশেষ করে নারীদের ঋতুবদ্ধতা নিরাময়ের ক্ষেত্রে এটি দারুণ কার্যকর। এছাড়া স্তনের প্রদাহ, প্রস্রাবের সমস্যা, বাতের ব্যথা, কাশি, শিশুদের অ্যাজমা নিরাময়ে মাকাল গাছের ফল-মূল-কাণ্ড বিশেষ ভূমিকা পালন করে। বীজের তেল সাপের কামড়, পেটের সমস্যা, মৃগীরোগ এবং চুলের বৃদ্ধি ও চুল কালো করতে কার্যকর।

About the Author

-

%d bloggers like this: