অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারে বাড়তে পারে পিঠ কোমর ব্যাথা

Share This
Tags

মুহম্মদ আহছান উল্লাহ//
সম্প্রতি ওয়াশিংটনে স্পাইন জার্নালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে দীর্ঘক্ষণ একটানা স্মার্টফোন বা সেলফোন ব্যবহারে সারা বিশ্বে দ্রুত বাড়ছে ঘাড়ের সমস্যা, ডিস্ক হার্ণিয়া এবং অ্যালাইনমেন্টের সমস্যা।
বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, যাদের মধ্যে পিঠ এবং ঘাড়ের সমস্যাও হওয়ার কথা নয়, সেই তরুণদের মধ্যে ডিস্ক হার্ণিয়া এবং অ্যালাইনমেন্ট জনিত সমস্যা অত্যাধিক পরিমাণে দেখা যাচ্ছে।
রিপোর্ট জানাচ্ছে, সাধারণভাবে সামনের দিকে তাকানো অবস্থায় মাথার ওজন ৪.৫ থেকে ৫.৪ কেজি হয়। কিন্তু এই সমস্যা শুরু হলে মাথা মাত্র ১৫ ডিগ্রি ঘোরালেই মনে হয় তার ওজন ১২ কেজি। স্পইন বা শিরদাঁড়ার ওপর ক্রমশ বাড়তে থাকে স্ট্রেস।
এই স্টাডিতেই একটি এক্সরে রিপোর্ট দেখিয়ে স্পাইন বিশেষজ্ঞ ডঃ টড ল্যানম্যান জানিয়েছেন, স্পাইনাল কর্ড সাধারণত পেছনের দিকে বেঁকে থাকে। কিন্তু আমরা যত সামনে ও নীচের দিকে ঝুঁকে কাজ করতে থাকি ততই উল্টো দিকে চাপ পড়ে এবং নানান অসুবিধা শুরু হতে থাকে।
লস অ্যাঞ্জেলসের কেড্রাস সিনাইয়ের অর্থপেডিক সার্জন ডঃ জেসন কুয়েলার বলেন, জীবনযাত্রার সামান্য পরিবর্তনে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে। তিনি আরও বলেন, স্মার্টফোন ব্যবহার করার সময়, বিশেষ করে টেক্সট করার সময় অবশ্যই ফোনটিকে মুখের বা চোখের উচ্চতায় ধরে ব্যবহার করা উচিত।
আরও জানান, টেক্সট করা বা মোবাইল সার্ফিংয়ের সময় দু হাত এবং দু হাতের বুড়ো আঙুল ব্যবহার স্পাইনের জন্য অনেক বেশি সহজ এবং আরামদায়ক।
স্মার্টফোন ছাড়াও যাদের কম্পিউটার বা ট্যাবলেটে কাজ করতে হয় তারা উঁচু মনিটর স্ট্যান্ড ব্যবহার করতে পারেন, যাতে স্বাভাবিকভাবে চোখের উচ্চতায় কাজ করা সম্ভব হয়। বসার সময় অবশ্যই সোজা হয়ে বসার কথা মনে রাখতে হবে।

About the Author

-

%d bloggers like this: