Published On: Thu, Aug 10th, 2017

জমি ফেরত দেয়ার অঙ্গীকার পুত্রর প্রশাসনের হস্তক্ষেপে আশ্রয় বৃদ্ধা রেনুয়া বেগমের

Share This
Tags

 

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধিঃ
অবশেষে গৌরনদী উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বৃদ্ধা রেনুয়া বেগম (৭৫) তার স্বামী গৃহে আশ্রয় পেলেন। তার পুত্র নুরুজ্জামন (৪৫) প্রশাসনের কাছে ভুল স্বীকার করে তার মায়ের কাছ থেকে জোরকরে লিখে নেয়া জমি ফেরত দেয়ার অঙ্গীকার করেছেন।
জানাগেছে, বরিশালের গৌরনদী উপজেলার নাজিরপুর শংকরপাশা গ্রামের মৃত সেকান্দার সরদারের পুত্র নুরুজ্জামান ওরফে নিভরসা কয়েক বছর আগে কৌশলে তার মা রেনুয়া বেগমের দেড় বিঘা সম্পত্তি নিজের নামে লিখে নেয়। একই সাথে সে হাতিয়ে নেয় রেনুয়ার গচ্ছিত ৩০ হাজার টাকা। এর পর থেকে নুরুজ্জামান ও তার স্ত্রী বৃদ্ধার ওপর নির্যাতন শুরু করে। পরবর্তিতে তিনি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে বিচার দিলে সে আরো ক্ষিপ্ত হয়। গত ৩ মাস আগে এ অপরাধে তাকে বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দেয়। এরপর থেকে রেনুয়া বেগম মানবেতর জীবন যাপন করছিলেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি কয়েকদিন আগে গৌরনদী থানায়ও অভিযোগ করেছিলেন রেনুয়া।
গত ৯ আগষ্ট দৈনিক ইত্তেফাকে’’গৌরনদীতে জমি লিখে নিয়ে বৃদ্ধা মাকে কে তাড়িয়ে দিয়েছে নিষ্ঠুর পুত্র’’ এ শিরোনামে একটি সংাবদ প্রকাশের পর প্রশাসনের টনক নড়ে। বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের নির্দেশে অসহায় রেনুয়া বেগমকে খুঁজে বের করেন গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ শরীফ আহম্মেদ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শরীফ আহম্মেদ বৃদ্ধা রেনুয়া বেগমকে সাথে নিয়ে তার স্বামী গৃহে ছুটে যান। এ সময় ইত্তেফাকের গৌরনদী সংবাদদাতা আলহাজ্ব জামাল উদ্দিন ও গৌরনদী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তিতে সাংবাদিক,আত্মীয় স্বজন ও স্থানীয়দের সম্মুখে নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে দোষ স্বীকার করে অনুশোচনা প্রকাশ করেন রেনুয়ার পুত্র নুরুজ্জামান ও পুত্রবধু সাহনাজ বেগম। নুরুজ্জামান ও তার স্ত্রী রেনুয়া বেগমের পা ছুয়ে ক্ষমা চেয়ে তাকে ঘরে তুলে নেন। একই সাথে ৩ দিনের মধ্যে তার জমি ফেরত দেয়ার অঙ্গীকার করেন।

About the Author

-

%d bloggers like this: