Published On: Fri, Oct 27th, 2017

কমলগঞ্জে আর্কাইভ উদ্বোধন

Share This
Tags

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি
১৯৭১ সালের ২৮ অক্টোবর মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ধলাই সীমান্তে হানাদারদের একটি ব্যাঙ্কারে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে ফেরার পথে পাক সেনাদের ছোড়া গুলিতে শহীদ হয়েছিলেন বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) আজ ধলই সীমান্তের স্মৃতিসৌধ এলাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবে বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান আর্কাইভ।
ইতিপূর্বে ধলই সীমান্ত ফাঁড়ির বিজিবির পক্ষে স্থানীয়ভাবে একটি নাম ফলক স্থাপন করে সীমান্ত ফাঁড়ির সামনে। ২০০৫ সালে তৎকালীন বিএনপি সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী মরহুম এম সাইফুর রহমান ধলাই সীমান্ত এলাকায় বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমানের স্মৃতি সৌধের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলন। সে সময় স্থানীয় সাংবাদিকদের লিখিত আবেদনে ও এলাকাবাসীর দাবিতে অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী মরহুম এম সাইফুর রহমানের উদ্যোগে বিএনপি সরকবার ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আমবাসা গ্রাম থেকে বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমানের মরদেহ বাংলাদেশে এনে মিরপুর বুদ্ধিজীবি কবরস্থানে সমাহিত করে।
দীর্ঘ ৬ মাসে একটি পূর্ণাঙ্গ স্মৃতি সৌধ নির্মাণ কাজও শেষে আবার মরহুম এম সাইফুর রহমান তা উদ্বোধন করেছিলেন। এর পর থেকে প্রতি বছর ২৮ অক্টোবর এলে হামিদুর রহমানের শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে কমলগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, বিজিবি ব্যাটেলিয়ন কমান্ড ও প্রেস ক্লাব তাঁর স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।
বিজিবি ৪৬ নং ব্যাটেরিযনের মেজর ইকবাল জানান, ৪৭তম শাহাদৎ বার্ষিকীতে বিজিবি ৪৬ নম্বর ব্যােটলিয়নের পক্ষে সকালে স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্পণ করবে। দুপুরে কাঙ্গালী বেঅজ পরিবেশ করা হবে। বিকাল ৩টায় বিজিবি শ্রমিঙ্গল সেক্টর কমান্ডার আনুষ্ঠানিকভাবে “বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান আর্কাইভ” উদ্বোধন করবেন। পরে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও কমলগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল, ও সাংবাদিকদের পক্ষে বীর শ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমানের স্মৃতিসৌধে পুর্ষ্পান করা হবে।

About the Author

-

%d bloggers like this: