Published On: Sun, Oct 22nd, 2017

রেকর্ড দরে বিক্রি হল মাকে লেখা টাইটানিক যাত্রীর শেষ চিঠি

Share This
Tags

বিশেষ প্রতিনিধিঃ ১০৫ বছর আগের একটা চিঠি। তারিখটা ১৪ এপ্রিল ১৯১২। নিলামে সেই চিঠিরই দাম উঠল এক কোটি টাকা।
স্ত্রী মেরি অ্যালিসকে সঙ্গে নিয়ে ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটন থেকে টাইটানিকে চেপেছিলেন আলেকজান্ডার অস্কার হোলভার্সন। জাহাজের পরিবেশ, সাজসজ্জা, আয়োজন, খাবার-দাবার— সব কিছুই মুগ্ধ করেছিল আলেকজান্ডারকে। টাইটানিকের সঙ্গে আবেগ-উচ্ছ্বাসের ঢেউয়ে ভেসে গিয়েছিলেন তিনিও।
জাহাজের ২২০০ যাত্রীর মতো আলেকজান্ডারও জানতেন না এই সফর মাঝপথেই থেমে যাবে! টাইটানিক যে দিন (১৪ এপ্রিল, ১৯১২) ডুবে যায় অতলান্তিকের অতল তলে, তার ঠিক আগের দিন মাকে চিঠি লেখেন আলেকজান্ডার। সেই চিঠিতে লেখা ছিল, “যদি সব ঠিকঠাক থাকে, তা হলে বুধবারেই নিউ ইয়র্কে পৌঁছে যাব আমরা।” চিঠিতে টাইটানিকের খাবার, স্বাচ্ছন্দ্য নিয়েও লিখেছিলেন তিনি। পেশায় মিনেসোটার সেলসম্যান আলেরজান্ডার ওই চিঠিতে আরও লেখেন, তিনি আমেরিকার তথা বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যবসায়ী জন জেকবের সঙ্গে বসে আড্ডা মারছেন। আরও লেখেন, “ভাবা যায়, এক জন এত ধনী ব্যবসায়ীর সঙ্গে সময় কাটাচ্ছি! এত টাকার মালিক, অথচ সাধারণ মানুষের মতোই আচরণ তাঁর।”
না, সব কিছু ঠিকঠাক থাকেনি। নিউ ইয়র্কেও পৌঁছনো হয়নি আলেজান্ডরের। তার আগেই ১৪ এপ্রিলে টাইটানিক ডুবে যায়। ১৫০০ হতভাগ্য যাত্রীদের মধ্যে ছিলেন আলেকজান্ডারও। তবে সেই দুর্ঘটনায় তাঁর স্ত্রী অ্যালিস বেঁচে যান। মাকে লেখা আলেকজান্ডারের সেই চিঠি বিক্রি করে দেয় তাঁর পরিবার। সেই চিঠিই শনিবার রেকর্ড দরে নিলাম হল লন্ডনে। দর উঠেছিল ১২৬,০০০ পাউন্ড। ভারতীয় মুদ্রায় যা এক কোটিরও বেশি।

About the Author

-

%d bloggers like this: