Published On: Sat, Oct 21st, 2017

বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্থ

Share This
Tags

জয়নাল আবেদীন, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় নি¤œচাপের প্রভাবে বৃহস্পতিবার রাত থেকে টানা মাঝারী বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। সপ্তাহের প্রথম দিন শনিবার (২১ অক্টোবর) উপজেলার সবগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিতি ছিল খুবই নগন্য। দুই দিনের টানা বৃষ্টিতে নানা জাতের শীতকালীন শাকসব্জি বিনষ্ট হচ্ছে। বাড়ছে ধলাই নদসহ সবগুলো পাহাড়ি ছড়ার পানি। উজানে ভারতীয় পাহাড়ি এলাকায় ঢলে ধলাই নদসহ ছড়ার পানি বিপদ সীমা অতিক্রম করে উঠতি আমন ফসল বিনষ্ট হওয়া আশঙ্কা রয়েছে।
নি¤œচাপের প্রভাবে শুক্রবারের বৃষ্টিতে জনজীবনে তেমন প্রভাব ফেলতে পারেনি। তবে সারা রাত ও শনিবার সারা দিনের বৃষ্টির ফলে বেলা ২টা পর্যন্ত হাটবাজারের অধিকাংশ দেকানপাঠ বন্ধ ছিল। খেটে খাওয়া মানুষজন ঘর থেকে বের হতে পারেনি। সড়কে যানবাহনের সংখ্যা ছিল কম।
উপজেলার চারটি কলেজসহ সবগুলো প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোঁজ করে জানা যায়, ছাত্র উপস্থিতি খুবই কম। তবে প্রাথমিকের পঞ্চম শ্রেণির চুড়ান্ত মডেল টেষ্ট, ৮ম সমাপনীর চুজান্ত মডেল চেষ্ট পরীক্ষা চলমান থাকায় এ দুটি শ্রেণিতে ছাত্র উপস্থিতি ছিল। বাকী শ্রেণিগুলিতে ৭ থেকে ১০ জন করে উপস্থিতি ছিল। কমলগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনেন্দ্র কুমার দেব ও শমশেরনগর এ এ টি এম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিহির ধর চৌধুরী জানান, প্রাকৃতিক দুর্যেগের কারণে ৮ম শ্রেনী ব্যতীত অন্যান্য শ্রেণিতে তেমন ছাত্র উপস্থিতি ছিল না। তারা আরও জানান, বৃষ্টির মাঝে শিক্ষার্থীরা ছাতা নিয়ে আসতে চাইলেও রাস্তার বেহাল অবস্থার কারণে আর আসতে পারেনি।
এ দিকে কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগরে কাঁচা বাজার বেলা ১২টায় গিয়ে দেখা যায়, শাকসব্জির সরবরাহ তুলনামূলক কম। যা আসছে তাও দাম চড়া। বিক্রেতারা জানান, দুই দিনের বৃষ্টিতে শীতকালীন উঠতি শাক সব্জি বিষ্ট হওয়ায় বাজারে আসছে না। ফলে দামও বেশী।
এব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুদ্দীন আহমদ টানা দুই দিনের বৃষ্টিতে উঠতি নানা জাতের শাকসব্জি বিনষ্ট হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, যে সমস্ত কৃষক শাকসব্জি বাগানে উপরে পলিথিনের চালা ব্যবহার করেছেন তাদের শাকসব্জি বিনষ্ট হয়নি। বাকী সবার ক্ষেতের শাকসব্জি বিনষ্ট হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যেই ধলাই নদসহ সবগুলো পাহাড়ি ছড়া, ধলাইসহ পানি আরও বেড়ে বিপদ সীমা অতিক্রম করে ক্ষেতের উঠতি আমন ফসল বিনষ্ট হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

About the Author

-

%d bloggers like this: