গৌরনদীতে শুভসংঘের উদ্যোগে মুক্তা চাষ প্রশিক্ষন কর্মসূচির উদ্ধোধন

Share This
Tags


বিডি কামাল স্টাফ রিপোর্টার,গৌরনদী ।
শুভসংঘ বরিশালের গৌরনদী উপজেলা শাখার উদ্যোগে ঝিনুক থেকে মুক্তা চাষ প্রশিক্ষন কর্মসূচির উদ্ধোধন করা হয়েছে। উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে ব্যাতিক্রম এ আয়োজনের শুভ উদ্ভোধন করেন গৌরনদী পৌরসভার মেয়র হারিছুর রহমান।
১৬ সেপ্টেম্ভর বুধবার সকাল সারে ১১ টায় নাঈম স্বৃতি ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে এ কর্মসুচির শুভ উদ্ভোধনের পর এক সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা শুভসংঘের সভাপতি বিশ্বজিত সরকার বিপ্লবের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি মেয়র হারিছুর রহমান ব্যাতিক্রম এ আয়োজনের প্রশংসা করেন এবং কালের কন্ঠ ও শুভসংঘের ভালো কাজের যে কোন ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন গৌরনদীসহ গোটা দক্ষিনাঞ্চলে কর্মসংস্থান ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির একটি মডেল হল শুভসংঘ গৌরনদী।
অনুষ্ঠানে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ হালীম,কাউন্সিলর রেজাউল করিম টিটু। আওয়মীলীগ নেতা খোকন মল্লিক, গৌরনদী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জোবায়েরুল ইসলাম সান্টু ভূইয়া, সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান দীপ, কাজি রনি, ছাত্রলীগ নেতা আতিক মিয়া ,ইমরান মিয়া, সাংবাদিক সঞ্জয় কুমার পাল,আমিন মোল্লা,এস এম রহমান।

প্রশিক্ষন কর্মসুচিতে শুভসংঘের সকল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে, প্রভাষক মোয়াজ্জম হোসাইন সরদার, প্রভাষক জহির উদ্দিন দোলন, প্রভাষক দিনেশ চন্দ্র জয়ধর, সহকারী প্রধান শিক্ষক পার্থ সারথি হালদার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শ্যামল চন্দ্র ঘোষ,এস এম মনির,কামাল হোসেন,হাফেজ মাওলানা সানবিম সোয়াইব, ব্যবসায়ী দেবাষীশ শাহা,কবি রুবেল মুন্সি,শিক্ষক মোশারফ হোসেন,ব্যবসায়ী মশিউর রহমান পিন্টু,শিক্ষক অহিদুল আলম ডাবলু,মুকেশ পাল মিল্টন,রাবেয়া হোসেন রাবু, শিক্ষক মারিয়া লিপিকা,বিথী আক্তার, নুসরাত জাহান তারিন, ব্যবসায়ী হরি সুত্রধর, আমির হামজা, বেল্লাল হোসেন,আবু সাইদ, আশিক আল সিরাজ প্রমূখ।
ঝিনুক থেকে মুক্তা চাষ পদ্ধতির প্রশিক্ষন দেন সফল মুক্তা চাষী, আহছান উল্লাহ ও রুহুল আমীন লিটন।
শুভসংঘ গৌরনদী উপজেলা শাখার সভাপতি বিশ্বজিত সরকার বিপ্লব ও সাধারন সম্পাদক আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, কর্মসংস্থান ও উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে পরিবেশ বান্ধব এই ক্ষুদ্র কর্মসুচির মাধ্যমে প্রথমে আমরা শুভসংঘের সাত সদস্যসহ ত্রিশজনকে প্রশিক্ষন দেবো। এবং আমাদের শুভসংঘের উপদেষ্টা ও পৃষ্টপোষকদের সহযোগিতায় পাঁচ হাজার ঝিনুক দিয়ে একটি প্রজেক্টের কাজ আমরা ইতিমধ্যে শুরু করেছি। আমাদের উৎপাদিত মুক্তা বাজারজাত করার জন্য আমাদের সাথে কয়েকটি জুয়েলারি প্রতিষ্ঠান চুক্তি করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তবে আমরা ঝিনুক থেকে মুক্তা চাষে সবচেয়ে বেশী গুরুত্ব দিচ্ছি ছাত্র/ছাত্রীদের। বর্তমান বাজারে ডিজাইন মুক্তার চাহিদা বেশী থাকায় আমরা এই মুক্তা চাষে অন্যদের পর্যায়ক্রমে প্রশিক্ষন দেয়ার ব্যবস্থা করব।

About the Author

-

%d bloggers like this: