Published On: Sat, Aug 8th, 2020

আগৈলঝাড়ায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের জন্ম বার্ষিকীতে দোয়া-মোনাজাত ও প্রার্থণা সভা

Share This
Tags

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, আগৈলঝাড়া ।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আগৈলঝাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ দোয়া মোনাজাত অনুষ্টিত হয়েছে।
শনিবার বাদ আছর উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিুবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের আত্মার শান্তি কামনায় তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা ফজলুল হক।
দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ মো. লিটন, উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তুজা খান, আওয়ামী লীগ নেতা এসএম হেমায়েত উদ্দিন, আব্দুস সাত্তার মোল্লা, ইউপি চেয়ারম্যান ইলিয়াস তালুকদার, শ্রমিকলীগ সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল কাশেম সরদার, সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার দাড়িয়া, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি সাইদুল সরদার, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী সেরনিয়াবাত, ছাত্রলীগ সভাপতি মিন্টু সেরনিয়াবাত, সিনিয়র সহ-সভাপতি উজ্জল হোসেন, সাধারন সম্পাদক জাকির পাইকসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
অন্যদিকে একই সময়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আওয়ামী লীগ হিন্দু নেতৃবৃন্দর উদ্যোগে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থণা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রার্থণা সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুনীল কুমার বাড়ৈ, আওয়ামী লীগ সাবেক নেতা নিত্যনন্দ মজুমদার, বিপুল দাস, উজ্জল লাহেড়ী, যুবলীগ সাধালণ সম্পাদক অনিমেষ মন্ডল।
১৯৩০ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে তিনি জাতির পিতার হত্যাকারীদের হাতে নির্মমভাবে মৃত্যুবরণ করেন। ইতিহাসে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব কেবল একজন রাষ্ট্র প্রধানের সহধর্মিণীই ছিলেন না, তিনি ছিলেন বাঙালীর মুক্তি সংগ্রামে অন্যতম এক অনুপ্রেরণাদাত্রী।

About the Author

-

%d bloggers like this: