Published On: Mon, Oct 16th, 2017

শমশেরনগরে পুলিশকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ

Share This
Tags

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ নাসির উদ্দিন এর বিরুদ্ধে মৌলভীবাজার আদালতে চাঁদা দাবির লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। শমশেরনগর ইউনিয়নের কেছুলুটি গ্রামের জামাল আহমদ খাঁন বাদী হয়ে মৌলভীবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৩ নম্বর আমল আদালতে লিখিত এই অভিযোগ করেন। তবে একটি মামলায় জামাল আহমদ খাঁনকে গ্রেফতার করায় মামলা দিতে পারে বলে অভিযোগক্ত পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়ছেন।
লিখিত অভিযোগে জানা যায়, শমশেরনগর বাজারে জামাল আহমদ ‘খান কার ফ্যাশন’ নামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার সৈয়দ নাসির উদ্দিন এসে নোহা লাইটেস গাড়ি ভাড়া নেন। সেই সুবাদে নাসির উদ্দীন এর সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং তিনি মাসে একাধিকবার গাড়ি ভাড়া নিতেন। হবিগঞ্জস্থ তার নিজ বাড়িতে নিয়েও পাঁচ, ছয় দিন থেকে আসার পর কোন ভাড়া দেন না। ভাড়ার কথা বললেই গাড়ি রিকুইজেশন সহ মামলায় জড়ানোর ভয় দেখাতেন। এভাবে বিভিন্ন সময়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে চলতেন।
এ অবস্থায় ১ অক্টোবর সন্ধ্যায় পুলিশ ফাঁড়ির সৈয়দ নাসির উদ্দীন সাদা পোশাকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং টাকা না দিলে বিভিন্ন ভয়ভিতি দেখান। বিষয়টি শমশেরনগর বণিক কল্যাণ সমিতির সদস্যবৃন্দকে অবগত করা হয়। ক্ষমতার অপব্যবহার করে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নিতে জামাল আহমদ খাঁনকে মিথ্যা মামলায় জড়িত করেন। এসব ঘটনায় বাধ্য হয়ে জামাল আহমদ খাঁন ৪ অক্টোবর মৌলভীবাজার আদালতে একটি পিটিশন মামলা (২২২/১৭) দায়ের করলে আদালত অভিযোগটি তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার পিবিআই (পুলিশ ব্যুরো ইনভেষ্টিগেশন) প্রেরন করেন।
তবে অভিযোগ বিষয়ে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ নাসির উদ্দিন বলেন, জামাল আহমদ খাঁন একটি মামলার আসামী তাকে গ্রেফতার করার কারনে এই মামলা দিতে পারে। জামাল আহমদের সাথে আমার আদৌ পূর্ব কোন পরিচয় নেই।

About the Author

-

%d bloggers like this: