Published On: Mon, Jan 6th, 2020

র‌্যাবের অভিযানে ৫ ভূয়া চিকিৎসক আটক

Share This
Tags

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় র‌্যাব-৮ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে পাঁচ জন ভূয়া হাড় ভাঙা ও দন্ত চিকিৎসককে আটক করেছে। সোমবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর একটি দল ভা-ারিয়া পৌরশহরে অভিযান চালিয়ে পাঁজন ভূয়া চিকিৎসককে আটক করা হয়। পরে পিরোজপুরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো, ইয়াছিন খন্দকার ভ্রাম্যমান আদালতে অভিযুক্ত চারজন ভুয়া দন্ত চিকিৎসক ও একজন একজন হাড়ভাঙা চিকিৎসককে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। এ ছাড়া ভুয়া চিকিৎসকের ৫টি চেম্বার ও ক্লিনিক সিলগালা করা হয় এবং একজন ঘর মালিককে অর্থদ-াদেশ দেওয়া হয়। র‌্যাব সূত্রে জানাগেছে, গোপনে তথ্য পেয়ে পিরোজপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছিন খন্দকার, র‌্যাব-০৮ এর সহকারি পরিচালক (এ.এস.পি) মো. ইফতেখারুজ্জামান ও মেডিকেল অফিসার ডা. মো. এ. এইচ. এম. ফাহাদ ভা-ারিয়া পৌর শহরের বিভিন্ন চিকিৎসকের চেম্বারে অভিযান চালায়। এসময় পাঁচজন হাতুরে হাড়ভাঙা ও দন্ত চিকিৎসক কোনও বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের র‌্যাব সদস্যরা আটক করে। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে আটককৃত চিকিৎসকরা দোষ স্বীকার করলে তাদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ-াদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়। এতে হাড়ভাঙা ক্লিনিকের মালিক ও ভুয়া চিকিৎসক শামীম আকনকে দুই বছরের কারাদ-, দন্ত চিকিৎসক ও জনতা দাঁতঘরের মালিক মো. ফাইজুল হক রানাকে ছয় মাস, পলাশ ডেন্টাল এন্ড হারবাল কেয়ারের মালিক মহিউদ্দিন আহমেদ পলাশকে ছয় মাস, বেঙ্গল ডেন্টাল কেয়ারের মালিক ও দন্ত চিকিৎসক জসিম উদ্দিন শাহীনকে চার মাস, লাকি ডেন্টাল কেয়ার এর মালিক ও দন্ত চিকিৎসক মো. বাবুল হোসেন নিরবকে দুই মাস এবং ঘর মালিক আব্দুল কাদের হাওলাদারকে হাড়ভাঙা ক্লিনিকে ঘর ভাড়া দেয়ার দায়ে ১৫ হাজার টাকা অর্থদ-াদেশ দেওয়া হয়। ভা-ারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. এ.এইচ.এম ফাহাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযুক্তরা হাতুরে চিকিৎসক। এসব ভূঁয়া চিকিৎসকদের কোনও প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। হাড়ভাঙা ও দাঁতের চিকিৎসার নামে সহজ সরল মানুষকে তারা ধোঁকা দিয়ে আসছিলো।

About the Author

-

%d bloggers like this: