অবাক হওয়ার কিছু নেই জানেন কি আপনার শরীরে দশটি জীব বাস করে !

Share This
Tags

শান্ত পথিক।
আপনি কি জানেন আপনার শরীর প্রায় একটি পৃথিবী? সেই পৃথিবীতে বাস করে কয়েক লক্ষ, কোটি জীব! আপনার শরীরে যতগুলি কোষ আছে তার দশগুণ আছে আণুবীক্ষণিক জীব। আপনি একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষ হলে আপনার শরীর ১০ লক্ষ কোটি কোষ নিয়ে গঠিত। আপনার শরীরের ভেতরে ও চামড়ার উপরে বাস করে এমন আণুবীক্ষণিক জীবের সংখ্যা ১০০ লক্ষ কোটি।

ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া, আর্কিয়া (archaea), ছত্রাক ও প্রটিস্টা ছাড়াও বেশ কিছু ছোট প্রাণী বাস করে আপনার শরীরে। সাধারণত মানুষের চামড়া, স্তন গ্রন্থি, প্লাসেন্টা, জরায়ু, ওভারির ফলিকল, বীর্য, ফুসফুস, লালা, মুখের মিউকাস স্তর, কনজাংটিভা, পিত্তনালী, পৌস্টিকনালী প্রভৃতি অংশে অণুজীবেরা তাদের বসতি গড়ে তোলে। ছোট প্রাণীরা বাস করে মূলত চামড়ায়।

আসুন চিনে নিই ১০ ধরনের অণুজীব ও ছোট প্রাণীকে, যারা আমাদের দেহকে তাদের বসতবাড়ি বানিয়ে ফেলেছে।

হিউম্যান প্যাপিলোমাভাইরাস
কয়েকশো ধরনের হিউম্যান প্যাপিলোমাভাইরাস (HPV) মানুষের শরীরে বাস করলেও টাইপ ১৬ এবং টাইপ ১৮ বেশি ক্ষতিকারক। এরা কয়েক প্রকার ক্যানসারের মূল কারণ।

হিউম্যান প্যাপিলোমাভাইরাস

ডেন্টাল স্ট্রেপ্টোকক্কাস
নিয়মিত ব্রাশ না করলে আমাদের দাঁতের ওপরে একটা ব্যাক্টেরিয়ার স্তর পড়ে যায়। এরা বেশিরভাগই হল Streptococcus sanguis এবং S. mutans। নিয়মিত ব্রাশ করলেও এরা কিছু পরিমাণে দাঁতে থেকেই যায়। দাঁত গজানোর সঙ্গে সঙ্গে এরা আবির্ভূত হয়, আর থাকে দাঁত খসে না যাওয়া পর্যন্ত।

স্ট্রেপ্টোকক্কাস স্যাঙ্গুইস

ভ্যাজাইনাল ফ্লোরা
ল্যাক্টোব্যাসিলাস গ্রুপের এই ব্যাকটেরিয়ারা বাস করে নারীদের জননাঙ্গে। নিয়মিত ল্যাকটিক অ্যাসিড উৎপাদন করে বলে কিছু ক্ষতিকর জীবানু যেমন Candida albicans নারীর যৌনাঙ্গে জন্মাতে পারে না। L. crispatus এই রকমই একটি উপকারি ব্যাকটেরিয়া।

ভ্যাজাইনাল ফ্লোরা

‘অ্যাথলিট’স ফুট’ ছত্রাক
এই ছত্রাক নখে ও আঙুলের ভাঁজে বাস করে। অনেক সময়ে মাথার তালুতেও এরা জন্মায়। ভেজা স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় একজনের শরীর থেকে অন্যের শরীরে এই ছত্রাকের সংক্রমণ ঘটে। Trichophyton এবং Epidermophyton এই ধরনের ছত্রাক।

এপিডার্মোফাইটন

শিংগলস ভাইরাস
আপনার একবার যদি চিকেন পক্স হয়ে থাকে তবে আপনার শরীরের মেরুদণ্ডের কাছের স্নায়ুতে varicella-zoster নামের ভাইরাসটি বাস করছে। এমনিতে নিস্ক্রিয় অবস্থায় থাকলেও, বয়স বাড়লে অথবা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলে এই ভাইরাস আবার সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে। তখন শরীরে জ্বালা-যন্ত্রণা এবং ত্বকে র্যা শ দেখা যায়। একে বলে শিংগলস।

ভ্যারিসেলা জোস্টার

ডেমোডেক্স মাইট
আপনার চোখের পাতার গোড়ায় এরা বাস করে। এখানেই তারা তাদের জীবন কাটায় ও বংশবৃদ্ধি করে। দিনের বেলা এরা চুপচাপ থাকে। রাতে আমরা যখন ঘুমিয়ে থাকি তখন আমাদের মুখের উপরে এরা চলাফেরা করে। আমাদের বয়স যত বাড়তে থাকে, এদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা তত বাড়তে থাকে।

ডেমোডেক্স মাইট
এঁটুলি পোকা
এই ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র পোকাটি মানুষের মাংস খেতে খুব ভালোবাসে। পোকাটির শরীর আবার নানান ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াতে পূর্ণ থাকে। এরা আমাদের শরীরে Lyme disease ও babeiosis রোগ ছড়ায়।

এঁটুলি পোকা
চিগো ফ্লি

আপনার চামড়ায় বাস করে। সেখানেই শ্বাসকার্য চালায়, বর্জ্যপদার্থ ত্যাগ করে এবং ডিম পাড়ে। এরা আমাদের চামড়ার ভেতর তাদের মাথাটা ঢুকিয়ে রাখে। আমাদের শরীরে এরা পচন (gangrene/necrosis) যক্ষ্মা (tuberculosis) রোগ ঘটায়।

চিগো ফ্লি
চিগার

এই পোকার লার্ভা রাসায়নিক পদার্থ ত্যাগ করে আমাদের চামড়ায় ফুটো করে। এরপর দেহের ভেতরে ঢোকে এবং চামড়ার ঠিক নীচে থাকা রক্তনালীর ভেতরে বাস করে। সেখানে পর্যাপ্ত খাবার খেয়ে পূর্ণবয়স্ক হয় এবং বাইরে বেরিয়ে আসে আমাদের কোনও ক্ষতি না করেই।

চিগার
যৌনকেশের কাঁকড়া উকুন

সাধারণত যৌনাঙ্গের কেশে বাস করে। কাঁকড়ার মতো দাঁড়া থাকায় এই নাম। ত্বকে গর্ত করে রক্ত পান করে। ফলে ভীষণ চুলকানি ও অস্বস্তি দেখা দেয়। যৌনমিলনের সময় একজনের শরীর থেকে অন্যের শরীরে সহজে এদের সংক্রমণ ঘটে।

কাঁকড়া উকুন
পাঁচড়া পোকা

আপনার চামড়ায় বাস করে। হাসপাতালের রোগী ও জেলের কয়েদিদের মধ্যে এর ভয়ঙ্কর সংক্রমণ ঘটে। র্যা শ ও প্রচণ্ড চুলকানি শুরু হয়। পাঁচড়া রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির সামান্য ছোঁয়া আপনার শরীরে এই কীটের অনুপ্রবেশ ঘটাতে পারে।

পাঁচড়া পোকা

আমাদের শরীরে উপরের জীবগুলির উপস্থিতি বেশিরভাগ সময়ে টেরও পাই না। তবে বিভিন্ন কারণে আমাদের শরীরের ভেতর এদের উৎপাত বেড়ে গেলে শুরু হয় শারীরিক অস্বস্তি। দেখা দেয় বিভিন্ন উপসর্গ। ছুটতে হয় চিকিৎসকের কাছে। ওয়াল

About the Author

-

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

%d bloggers like this: