ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০১৯’বেষ্ট স্টল অ্যাওয়ার্ড পেলো সিনকো বিডি লিমিটেড

Share This
Tags

সিনকোর পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন  ছানী, কবির ও সোহেলসিনকোর পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন ছানী, কবির ও সোহেলপ্রযুক্তিপণ্যের দেশীয় ব্র্যান্ড সিনকো। সাশ্রয়ী দামে সর্বাধুনিক ফিচারসমৃদ্ধ ডিজিটাল ডিভাইসের এডাপটার দিয়ে দেশে সিনকো একটি প্রশংসিত নাম। দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য উৎপাদন শিল্পে যা প্রতিনিধিত্ব করছে সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশের। এর স্বীকৃতিস্বরূপ সিনকো পেলো বেষ্ট স্টল অ্যাওয়ার্ড’।
বুধবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে তিনদিনব্যাপী এ আয়োজনের সমাপনী অনুষ্ঠান এবং অ্যাওয়ার্ড নাইট অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই সিনকোকে পুরস্কৃত করা হয়। মেলায় শৈল্পিক ডিজাইনের দৃষ্টিনন্দন ষ্টল, নিজস্ব উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শন ও নারীসহ অসংখ্য কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ভুমিকা রাখায় বেস্ট ষ্টলের চ্যাম্পিয়ন হিসাবে পুরস্কার পেয়েছে সিনকো।

১৪ অক্টোবর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হয় ‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০১৯’। সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, আইডিয়া প্রকল্প, এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির যৌথ উদ্যেগে প্রথমবারের মতো আয়োজিত তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক এ মেগা ইভেন্টে অংশ নেয় সিনকো। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এ. কে. এম. রহমতউল্লাহ এমপি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস এলায়েন্স-এর সেক্রেটারি জেনারেল ড. জেমস (জিম) পয়জান্ট, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির প্রেসিডেন্ট শহিদ উল মুনির এবং বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম।

সিনকোর পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে.এম আলফেছ ছানী, পরিচালক মনিরুজ্জামান কবির ও পরিচালক জিল্লুর রহমান।

উল্লেখ্য, স্থানীয় শিল্পের বিকাশ এবং সাশ্রয়ী মূল্যে উচ্চমানের পণ্য ও সেবা পৌঁছে দিতে ২০১৭ সালে সিনকো ঢাকাতে চালু করে বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইসের এডাপটার তৈরির পূর্ণাঙ্গ কারখানা। এর পর বরিশালে ২০১৮ সালে বিসিক শিল্পনগরীতে কারখানা স্থানান্তরিত করে নারী কর্মীদের অগ্রাধিকার দিয়ে চালু করে প্রথম এবং একমাত্র ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদন কারখানা। ২০২০ সালে সিনকো দেশেই কম্পিউটার, ল্যাপটপ এবং অন্যান্য আইসিটি পণ্য উৎপাদন শুরু করার আশা ব্যক্ত করে।
ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলফেছ ছানী বলেন, সিনকোর নিজস্ব কারখানায় তৈরি বিভিন্ন ডিভাইসের এডাপটার দেশের চাহিদা মিটিয়ে রফতানি করবে।

বেষ্ট স্টল অ্যাওয়ার্ড পেলো সিনকো বিডি লিমিটেডবেষ্ট স্টল অ্যাওয়ার্ড পেলো সিনকো বিডি লিমিটেডপরিচালক জিল্লুর রহমান সোহেল বলেন, ৪৯২টি উপজেলায় ৪৯২ জন উদ্যোক্তা তৈরীতে কাজ করছে সিনকো। সিনকোর সাথে আছে দুইজন নারী উদ্যোক্তাসহ কয়েক জন তরুন। মেইড ইন বাংলাদেশ শ্লোগানকে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে চায় সিনকো। একই সঙ্গে আমদানি নির্ভরতা হ্রাস এবং রফতানি ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধির মাধ্যমে জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে চায় সিনকো। এ জন্য সরকারের সহযোগীতা প্রয়োজন। এই অর্জনের মাধ্যমে সিনকো সামনের দিকে এগিয়ে যাবার অনুপ্রেরনা পেল।

পরিচালক মনিরুজ্জামান কবির বলেন, ঢাকায় চাপ কমাতে এবং বরিশালের নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সিনকোর মাধ্যমে সাহসী উদ্যোগ গ্রহন করেছি। এ এওয়ার্ডের মাধ্যমে সিনকো এখন দেশের রোল মডেল।

About the Author

-

%d bloggers like this: