Published On: Wed, Sep 18th, 2019

মঠবাড়িয়ায় বেড়িবাঁধে সৃজিত বনজ বৃক্ষ আত্মসাতের ঘটনায় সুফল ভোগীদের মানবন্ধন

Share This
Tags

পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপকূলীয় সবুজ বেষ্টনী প্রকল্পের আওতায় বেড়িবাঁধের দুই পাড়ে সৃজিত ৪০০ বনজ গাছ কেটে আত্মসাত করার মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সুফলভোগী এবং গ্রামবাসী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার হোতখালী সিএ-বি বাজার সংলগ্ন বেড়িবাধের ওপর ঘন্ট্যব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় । এতে সৃজিত বৃক্ষের সুফলভোগি ও গ্রামবাসী অংশ নেন। শেষে স্থানীয় গুলিসাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন, হলতা গুলিসাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. রিয়াজুল আলম ঝনো, মুক্তিযোদ্ধা মো. আমীর হোসেন, ইউপি সদস্য মো. ফারুক ফরাজি, যুবলীগ নেতা ফারুক ফরাজি, ওয়াহিদুজ্জামন চুন্নু, সুফলভোগি মো. বেলায়েত হাওলাদার ও হারুণ জমাদ্দার প্রমূখ।
সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন, ২০০০ সালে উপকূলীয় সবুজ বেষ্টনী প্রকল্পের আওতায় মঠবাড়িয়ার হোতখালী বেড়িবাঁধের দুই পাড়ে ২৫ হাজার বৃক্ষ রোপন করে। এ বেরিবাঁধ সুরক্ষায় রেইনিট্র, নিম, তুলা, বকুল, গামার ও গর্জণ গত ২০ বছরে বেড়ে ওঠে। এলাকার ৫০ জন উপকারভোগী এসব গাছ টানা ২০ বছর ধরে পরিচর্যা ও সুরক্ষা করে আসছিলেন। সম্প্রতি বেড়িবাঁধ সংলগ্ন একটি খাল পূনঃ খননের সময় ১৪০টি গাছ কর্তন করতে হয়। এসব গাছ উপজেলা বনবিভাগের নির্দেশে সুফলভোগীরা সংরক্ষণ করেন। কিন্তু স্থানীয় একটি মহল ৪০০ গাছ কর্তন ও আত্মসাতের মিথ্যা অভিযোগ এনে সম্প্রতি একটি মানববন্ধন করে। প্রতিপক্ষরা গাছ আত্মসাতের মিথ্যা অভিযোগ জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। অথচ কর্তনকৃত ১৪০ গাছ বনবিভাগের নির্দেশে সুফলভোগিদের জিম্মায় সংরক্ষিত রয়েছে। সমাবেশে আরও অভিযোগ করা হয়, গাছ আত্মসাতের মিথ্যা অভিযোগ রটনাকারিররা ২০০৭ সালের ঘূর্ণিঝড় সিডরে বেড়িবাঁধে সৃজিত ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকার গাছ কেটে আত্মসাত করেছে। প্রসঙ্গতঃ এর আগে বেড়িবাঁধে সৃজিত ৪০০ গাছ কেটে আত্মসাতের অভিযোগ এনে গত মঙ্গলবার দুপুরে মঠবাড়িয়া হোতখালী সিএ-বি বাজার সড়কে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে। ওই অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে আজ পাল্টা মানববন্ধন ও প্রবিাদ সমাবেশ করে সুফলভোগী ও গ্রামবাসীরা।

About the Author

-

%d bloggers like this: