মহাকাশে নভশ্চর পাঠানোর পরিকল্পনা নিল পাকিস্তান। পাক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ হোসেন চোধুরী রবিবার জানিয়েছেন, ২০২২ সালে মহাকাশে নভশ্চর পাঠাবেন তাঁরা। এবং পাকিস্তানের বন্ধু দেশ চিন এই মহাকাশ মিশনে প্রয়োজনীয় সাহায্য করবে তাঁদের।

ফাওয়াদ জানিয়েছেন, ২০২০ সাল থেকে মহাকাশ অভিযানের প্রস্তুতি শুরু হবে। প্রথমে ৫০ জনের তালিকা করা হবে। সেখান থেকে বেছে নেওয়া হবে ২৫ জনকে। তারপর সেখান থেকে একজন নভশ্চরকে মহাকাশে পাঠাবে পাকিস্তান। গোটা মিশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে পাক বায়ু সেনা। তারাই বাছাই পর্ব সারবে। মিশন মহাকাশের তত্ত্বাবধান করবে পাকিস্তানের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র।

চন্দ্রযান-২ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকমন্ত্রী-সহ সে দেশের জনগণ ভারতের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করতে কোমর বেঁধে নেমেছিল। ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে ইসরোর কন্ট্রোল রুমের সিগন্যাল ছিন্ন হওয়ার ফর উল্লাসে ফেটে পড়েছিল পাক নাগরিকদের একটা বড় অংশ। সেই সময়েই ভারতের তরফে পাল্টা বলা হয়েছিল, মহাকাশ গবেষণায় যাঁদের কিচ্ছু করার মুরোদ নেই, তাদের আবার বড় বড় কথা। গত বছর পাকিস্তান একটি উপগ্রহ পাঠিয়েছিল। তা-ও চিনের লঞ্চপ্যাড ব্যবহার করে। দু’সপ্তাহের মধ্যেই ইসলামাবাদ জানাল মহাকাশে নভশ্চর পাঠাবে তারা। এ বারও সেই চিনের ঘাড়ে ভর করেই।