Published On: Tue, Sep 10th, 2019

বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদ গুণীজন সম্মাননা পেলেন খায়রুল বশার

Share This
Tags

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, বরিশাল

দেশের সংগীতাঙ্গন, সংস্কৃতি চর্চা ও বিকাশে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদ গুণীজন সম্মাননা পুরস্কার ২০১৯ পেলেন মো. খায়রুল বশার।  বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদ (বাসাপ) এর আয়োজনে সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী’র সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্রে আলোচনাসভা, গুণীজন সম্মাননা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে সংগীত প্রযোজক হিসেবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক ফোরাম এর যুগ্ম সম্পাদক মো. খায়রুল বশার এর হাতে বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার তুলে দেন অতিথীবৃন্দ।  অর্থ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোজাফ্ফর হোসেন পল্টু। উদ্ভোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট এর চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল।
অনুষ্ঠানে জুরি বোর্ড সদস্যরা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক ফোরাম এর যুগ্ম সম্পাদক মো. খায়রুল বশারসহ দেশের সাংস্কৃতি অঙ্গনে প্রথিতযশা ১২জন বিশিষ্ট গুনী জনকে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সরব কর্মকান্ডে বিশেষ অবদানের জন্য বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার (এ্যাওয়ার্ড) প্রদান করেন।
এসময় চিত্র নায়িকা নতুনসহ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অসংখ্য শিল্পী ও কলাকুশলীরা উপস্থিত ছিলেন।
খায়রুল বশার মন্ত্রী পদ মর্যাদায় পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষন কমিটির আহ্বায়ক, জাতির পিতার ভাগ্নে আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি’র একান্ত সচিব হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
গুণী ব্যাক্তিত্ব মো. খায়রুল বশার ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সচিবালয়ে চাকুরীতে যোগদান করেন। গোপালগঞ্জ জেলার দু’বারের শ্রেষ্ট শিক্ষক নির্বাচিত হওয়া মুকসুদপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রামের মরহুম আবুল বশার মিয়া ও মরহুম শিরিনা বেগম দম্পত্তির ঘরে জন্ম নেয়া খায়রুল বশার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯২ সালে রাষ্ট্র বিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন, ১৯৯৩ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এল.এল.বি ডিগ্রী অর্জন করেন তিনি। সরকারী চাকুরীর পাশাপাশি সমাজ সেবা ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে আবুল বশার সমানভাবে নিজেকে জড়িত রেখেছেন। ইতোমধ্যেই গুণী শিল্পী খায়রুল বশারের প্রযোজনায় বের হয়েছে- ‘যেতে হবে জন্মের বেশে, পাখি উড়ে যায়, আমার গানের কলি-১ ও ২ নামের চারটি গানের সিডি। গানের এ্যালবামগুলোতে কন্ঠ দিয়েছেন দেশের খ্যাতিনামা শিল্পী মমতাজ বেগম, এ্যান্ডু কিশোর, সুবির নন্দী, আব্দুল জব্বার, বারী সিদ্দিকী, ফেরদৌস আরা, চন্দনা মজুমদার, এসডি রুবেল, সোনিয়া, শাহনাজ, নোলক বাবু, হিমাদ্রী বিশ্বাস, রোজ বাবু, নাসির খান, মধু ছিনথিয়া, ও অর্চণা মালাকার।
খায়রুল বশার ছাত্র জীবনে বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহন করেন। খায়রুল বশার ‘ইয়ুথ ওয়েলফেয়ার এলায়েন্স এর সভাপতি, বাংলাদেশ বধির ক্রীড়া ফেডারেশন এর সহ-সভাপতি, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক ফোরাম এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু চেতনা মঞ্চ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে কর্মরতসহ বিভিন্ন সমাজসেবা মুলক দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন।

About the Author

-

%d bloggers like this: