Published On: Fri, Jul 26th, 2019

মঠবাড়িয়ায় নির্মাণের আগেই ভেঙ্গে পড়ল ভবনের ছাদ

Share This
Tags

 

মঠবাড়িয়ায় নির্মাণের আগেই ভেঙ্গে পড়ল ভবনের ছাদ

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর কর্তৃক নির্মাণাধীন খায়ের ঘটিচড়া হামিদিয়া দাখিল মাদ্রাসা বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রের তিন তলার চিলা কোঠায় ওঠার সিড়ির রুমের ছাদ নির্মাণের ২২ দিনের মাথায় ধ্বসে পড়েছে। এতে নির্মাণ শ্রমিক আবুল বাসার (বাদশা) (৩৫) ও সুরেশ (৫৫) অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। ঠিকাদারের বিরুদ্ধে কাজে অনিয়ম ও নিম্ন মানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ এলাকাবাসির। সরেজমিনে গিয়ে জানাযায়, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর “উপকূলীয় ও ঘূর্ণিঝড় প্রধান এলাকায় বহুমূখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প (২য় পর্যায়)” এর আওতায় খায়ের ঘটিচড়া হামিদিয়া দাখিল মাদ্রাসা বহুমূখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রের ৩ তলা ভবনের (৭৮০.০৮ বর্গমিটার) নির্মাণ কাজ ২৬.০৩.১৮ তারিখ শুরু হয়। ভবনের কাজের শেষ পর্যায় ৩ তলার চিলা কোঠায় ওঠার সিড়ির রুমের ছাদ ঢালাইয়ের ২২ দিন পর বুধবার সকালে সেন্টারিং খোলার সময় পিলারসহ ছাদ ধ্বসে পড়ে। নির্মাণ শ্রমিক আবুল বাশার জানান, সেন্টারিংয়ের বাঁশ খোলার সময় হঠাৎ বিকট শব্দে ছাদ ভেঙ্গে পরে। নির্মণাধীন ভবনের সামনে টানানো বোর্ড অনুযায়ি কাজের মূল ঠিকাদার চঞঝ-গঅওঞজঊঊ (চঠঞ) খঞউ.৩৯, গলঁসফবৎ ঐড়ঁংব, খবাবষ-০৪, ঝঁরঃব-ঋ, চঁৎধহধ চধষঃধহ, উযধশধ-১০০০। কাজের ব্যায় ২ কোটি ২৬ লাখ ১৬ হাজার ৪০৩ টাকা। মূল ঠিকাদারের নিকট থেকে ভান্ডারিয়ার শহীদুল বিশ্বাষ ও সগীর পোদ্দার সাব কন্ট্রাক্ট নেন। মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আঃ রহমান জানান, নির্মাণ কাজের শুরু থেকেই ঠিকাদার অনিয়ম করে আসছে। ধ্বসে যাওয়া রুমের ঢালাইয়ে সিলেটের বালুর পরিবর্তে স্থানীয় বালু দেয়া হয় এবং রড কম দেয়া হয়েছে। তারা প্রতিবাদ করলে ঠিকাদার কানে নেয়নি বলে তিনি জানান। সুপার আরও জানান, শুরু থেকে কাজে অনিয়মের প্রতিবাদ করলে ঠিকাদার তাকে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন মামলা দেয়ার হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে সাব কন্ট্রাক্টর শহীদুল বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বৃষ্টির কারনে কাজ ঠিকভাবে করা যায়নি বলে জানান। পূনরায় যথাযথ নিয়মে দ্রুত ছাদ ঢালাই দিয়ে দেবেন বলে জানান।
এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের পিআইও মসিউর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ঢালাই দেয়ার আগে তাদের জানানোর কথা থাকলেও ঠিকাদার তাদেরকে না জানিয়ে ঢালাই দেয়ায় তারা উপস্থিত থাকতে পারেননি। ধ্বসের খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পরিদর্শণ করে উর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে তিনি জানান।

About the Author

-

%d bloggers like this: