Published On: Wed, Oct 4th, 2017

কমলগঞ্জে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগে সর্বত্র সয়লাব ॥ বিপর্যস্ত হচ্ছে পরিবেশ

Share This
Tags

জয়নাল আবেদীন,কমলগঞ্জ

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা সহ আশপাশ এলাকায় অবাধে বাজারজাত হচ্ছে পলিথিন শপিং ব্যাগ। পলিথিন শপিং ব্যাগ বর্জন করে দেশকে পরিবেশগত বিপর্যয় থেকে রক্ষা করতে পলিথিন শপিং ব্যাগ বিরোধী কোন অভিযান না থাকায় হাট বাজারে সর্বত্র এখন নিষিদ্ধ পলিথিনে ভরপুর হয়ে উঠেছে। সকল প্রকার ব্যবসা প্রতিষ্টানে পণ্য সামগ্রীর সাথে এই ব্যাগ ফ্রি দেয়া হচ্ছে। ফলে রাস্তাঘাট, নদী-নালা, ড্রেন ও মাটির গর্তে পলিথিনের আবর্জনা ছড়িয়ে দূষণ ও পরিবেশের বিপর্যয় সৃষ্টি করছে। বন্ধ হচ্ছে ছড়া ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা। ফলে রাস্তাঘাট, নদী-নালা, ড্রেন ও মাটির গর্তে পলিথিনের আবর্জনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে বন্ধ হচ্ছে ছড়া ও ড্রেনের মুখ। পরিবেশ হচ্ছে মারাত্মক দুষনীয়। ছোট বড় হাট বাজার থেকে পাড়া মহল্লার মুদি দোকান, সবজি, মাছ ও ফল ব্যবসায়ীরা প্রকাশ্যে নিষিদ্ধ পলিথিনের ব্যবহার শুরু করেছে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সরকার পলিথিন ফ্যাক্টরী বন্ধ করে সর্বত্র এর ব্যবহার নিষিদ্ধ করার ফলে বিগত কয়েক বছর বিভাগ, জেলা, উপজেলাসহ শহরের বিভিন্ন শপিংমল গুলোতে পলিথিন ব্যাগ চোখে পড়েনি। গত কয়েক বছরে হাট বাজার ছাড়াও পাড়া মহল্লা এবং রাস্তার পাশে গড়ে উঠা দোকান পাঠ সমূহে পণ্য সামগ্রীর সাথে বিভিন্ন রূপে পলিথিন শপিং ব্যাগ এর ব্যবহার উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে। সিলেট ও মৌলভীবাজারের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সহ নার্সারী সমূহেও ব্যাপকহারে নিষিদ্ধ পলিথিনে সয়লাব হয়ে পড়ছে। এতে মাটি, পানি, পরিবেশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে।

মৌলভীবাজার পরিবেশ সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক নূরুল মোহাইমীন মিল্টন বলেন, নিষিদ্ধ পলিব্যাগে সর্বত্র ছেয়ে গেছে। পরিবেশ আমাদের বড় উপাদান অথচ পলিথিন পরিবেশের জন্য হুমকি স্বরূপ। পলিথিন সহজে পঁচে না অপচনশীল উপাদান হিসাবে প্রকৃতিতে রয়ে যায় এবং পরিবেশের মারাত্মক দূষণ ঘটাতে থাকে। পলিথিন মাটির উর্বরতা নষ্ট করে, পয়নিস্কাশন ব্যবস্থায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে, মাছ-মাংস প্যাকেটজাত করে সংরক্ষণ করলে ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি হয়ে মাছ-মাংসে দ্রুত পচন ধরাতে সক্ষম। তিনি আরও বলেন, পলিথিন ব্যাগ ড্রেন, নর্দমায় পড়ে পানি নিষ্কাষনে মারাত্মক বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে, এমনকি ড্রেন ও নালার মুখ বন্ধ হয়ে হাটবাজারে জলাব্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। প্রশাসনের নাকের ডগায় মাছ, তরিতরকারী, ফলমুল, বিস্কুট ও ষ্টেশনারীসহ সকল প্রকার পণ্য সামগ্রীর সাথে পলিথিন শপিং ব্যাগ দেওয়া হচ্ছে। তাই সরকারী উদ্যোগে পলিথিন ফ্যাক্টরী সমূহ সম্পূর্ণরূপে বন্ধ এবং হাটবাজারে এই ব্যাগ বিক্রি সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ করতে তিনি সরকারের নিকট দাবি জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যবসায়ীরা বলেন, ফ্যাক্টরী থেকে পলিথিন ব্যবসায়ীরা নির্বিগ্নে ব্যাগ এনে বাজারে বিক্রি করছেন। যে কারনে সকল ব্যবসা প্রতিষ্টানে ক্রেতাদের মালামালের সাথে ব্যাগ ফ্রি দেওয়া হচ্ছে। ফলে যত্রতত্র ব্যাগ ফেলে পরিবেশ দুষিত করে তোলা হচ্ছে। ফলে পরিবেশ এক মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে। এখনই রোধ করা না গেলে তা আরো ক্ষতির কারণ হয়ে দেখা দেবে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা।

এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, আইনে পলিথিন শপিং ব্যাগ বাজারজাত ও ব্যবহার নিষিদ্ধ। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় এসব বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

About the Author

-

%d bloggers like this: