Published On: Tue, Jun 18th, 2019

এক অন্য বাংলাদেশ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জয়

Share This
Tags

 

সবুজবাংলা ক্রীড়া ডেস্কঃএ যেন এক অন্য বাংলাদেশ। এ যেন এক অন্য শাকিব আল হাসান। এ বারের বিশ্বকাপে যেন অন্যভাবে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের এই তারকাকে। যেখানে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের মাঠে ২৫০ রান এখনও পর্যন্ত তাড়া হয়নি, সেখানে এই প্রথম বাংলাদেশ ৩০০-র উপর রান তাড়া করল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দুরন্ত জয় তুলে নিল বাংলাদেশ।

এ দিন টনটনে টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি মোর্তাজা। শুরুটা ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের। শূণ্য রানের মাথায় আউট হন গেইল। তারপর খেলা ধরেন শাই হোপ ও এভিন লুইস। দু’জনে মিলে দলের রানকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। বাংলাদেশ বোলাররা তাঁদের সমস্যায় ফেলতে পারছিলেন না। তখনই ত্রাতার ভূমিকায় দেখা যায় শাকিবকে। ৭০ রানের মাথায় তিনি লুইসকে আউট করেন।তারপর নিকোলাস পুরান ও শাই হোপ জুটি বাঁধেন। পুরান ২৫ রানের মাথায় আউট হন। হোপ সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছিলেন। মনে হচ্ছিল, বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করতে চলেছেন হোপ। কিন্তু ৯৬ রানের মাথায় মুস্তাফিজুরের বলে আউট হন হোপ। হেটমায়েরও ২৬ বলে ৫০ করে আউট হন। রাসেল শূণ্য করে আউট হন। শেষ দিকে অধিনায়ক হোল্ডার ঝোড়ো ৩৩ করেন। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে আট উইকেটে ৩২১ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

 

 

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরু করেন সৌম্য সরকার ও তামিম ইকবাল। সৌম্য ২৯ করে আউট হন। তামিম ৪৮ করে রান আউট হন। মুশফিকুরও রান পাননি। তারপরেই পার্টনারশিপ গড়েন অভিজ্ঞ শাকিব আল হাসান ও এই ম্যাচে সুযোগ পাওয়া লিটন দাস। এই পার্টনারশিপ ভাঙা আর সম্ভব হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের জন্য। দুজনে মিলে ১৮৯ রানের পার্টনারশিপ গড়েন।

আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করার পর এই ম্যাচেও দুরন্ত সেঞ্চুরি করেন শাকিব। অন্যদিকে আক্রমণাত্মক ভূমিকায় দেখা যায় লিটন দাসকেও। মাত্র ৪১.৩ ওভারে সাত উইকেটে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। শাকিব ৯৯ বলে ১২৪ করে অপরাজিত থাকেন। লিটন দাস ৬৯ বলে ৯৪ করে আউট হন।

এই জয়ের ফলে বিশ্বকাপে সবথেকে বড় জয় পেল বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে চলতি বিশ্বকাপে এই প্রথম ৩০০-র উপর রান তাড়া হলো। সেই সঙ্গে পরের ম্যাচগুলির আগে নিজেদের শক্তির জানান দিল বাংলাদেশ।

About the Author

-

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

%d bloggers like this: